মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

তেলিখাল ইউনিয়নের ইতিহাস

সিলেট জেলার অন্তর্গত কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা, ০৩টি ইউনিয়ন নিয়ে যাত্রা শুরু করে। কালের আবহমান পরিবর্তন ও অতিরিক্ত জনসংখ্যা বৃদ্ধিরফলে গুন সম্পন্ন মৌলিক অধিকার নিশ্চিত অথবা সামাজিক ও রাষ্ট্রিয় সুযোগ-সুবিধা বন্টন করা পুরোপুরি সম্ভব হতনা। তাই এ মানুষের মৌলিক অধিকার  নিশ্চিত করা, অথবা সামাজিক ও রাষ্ট্রিয় সুযোগ-সুবিধা বন্টন করা পুরোপুরি  নিশ্চিত করতে এই ০৩টি ইউনিয়নকে ভেঙ্গে ০৬টি ইউনিয়নে রুপান্তরিত করা হয় তার একটি  ০৩ নং তেলিখাল ইউনিয়ন পরিষদ। জন্মলগ্ন থেকেই এ ইউনিয়নটি তেলিখাল ইউনিয়ন পরিষদের অর্ন্তভুক্ত ছিল। আশির দশক নিয়ে দুই দশক তেলিখাল নামে পরিচিত ছিল। বৃহত্তর তেলিখাল ইউনিয়নের ভৌগালিক সীমা রেখা ছিল খুব বড়। প্রায় ৩১টি গ্রাম ছিল এর অর্ন্তভুক্ত। বিশাল জনগোষ্টি সামাল দেয়া তাদের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করা পুরোপুরি সম্ভব ছিল না। মানুষের মৌলিক অধিকার পুরোপুরি নিশ্চিত করতে তেলিখাল ইউ/পি কে ভাগ করে আরেকটি ইউনিয়ন গঠন করা হয়। সেই ইউনিয়নটির নাম ৪নং ইছাকলস ইউনিয়ন পরিষদ। তেলিখাল ইউনিয়নে বর্তমান জনসংখ্যা প্রায়-২৯,৫০০/=(উনত্রিশ হাজার পাচশত)। এ ইউনিয়নে প্রায়- ২৩টি গ্রাম নিয়ে গঠিত।   এর ভৌগলিক সীমারেখা হচ্ছে- পুর্বে নিজ উপজেলার দক্ষিণ রণিখাই ইউনিয়ন। , পশ্চিমে- ইসলামপুর ইউনিয়ন পরিষদ, উত্তরে- পূর্ব ইসলামপুর ইউনিয়ন পরিষদ, দক্ষিনে- ইছাকলস ইউনিয়ন পরিষদ,

 

উক্ত ইউনিয়নের নামকরণ কিভাবে হয় তা আজও জানা যায় নি। ১৯৯৭-৯৮ সালে উক্ত ইউনিয়ন পরিষদটি প্রতিষ্ঠা লাভ করে। সূচনালগ্ন থেকে তেলিখাল ইউনিয়ন পরিষদ তার কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করে আসছে।

ছবি



Share with :

Facebook Twitter